পূণ্যলগ্নে পুণ্যস্নান গঙ্গাসাগরে

0
53

দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা: মকর সংক্রান্তির পূণ্যলগ্নে গঙ্গাসাগরে ডুব দিলেন লক্ষাধিক পুণ্যার্থী। সকাল ছটা থেকে শুরু হয়েছে মকর সংক্রান্তির পূণ্যলগ্নে স্নান। সেই পূণ্যলগ্নে পূর্ণতা অর্জন করতে লক্ষাধিক মানুষের সমাবেশে গঙ্গাসাগরে স্নান পর্ব চলছে। এই ভিড়কে তদারকি করছেন পুলিশ প্রশাসন, স্বাস্থ্য কর্মী এবং ভারত সেবাশ্রমের স্বেচ্ছাসেবকগন। এই মেলাতে পুলিশ প্রশাসন কোনরকম খামতি রাখতে চাইছে না অন্যান্য বছরের তুলনায় এ বছর গঙ্গাসাগর মেলায় পুণ্যার্থীর সংখ্যা অনেকটাই কম।ভিন রাজ্য থেকে যারা গঙ্গাসাগর মেলায় আসছে তাদেরকে পুলিশ প্রশাসনের তরফ থেকে মাক্স স্যানিটাইজার দেওয়া হচ্ছে।

ভিন রাজ্য থেকে আসা পুণ্যার্থীদের হাতে প্রশাসন লেভেল ব্যান্ড বেঁধে দেয় যাতে পুলিশ প্রশাসন ভিন রাজ্যে থেকে আসা পূণাথীদের সহজে চিনতে পারে ।কোন প্রকারে খামতি রাখেনি প্রশাসন প্রশাসন। মেলাতে চোখে পড়ার মতন ছিল নাগা সন্নাসীদের কীর্তিকলাপ। এই সমস্ত নাগা সন্ন্যাসীরা শুধুমাত্র পুণ্যার্থীদের কাছে ডেকে মাথায় ময়ূরের পেখম বেষ্টিত দণ্ডনীয় আশীর্বাদ করছে। এই সমস্ত দেখার জন্য যুবকরা মোবাইল দিয়ে ছবি তোলার জন্য ব্যস্ত হয়ে পড়ে। পাশাপাশি গঙ্গাসাগর বকখালি ডেভলপমেন্ট এর পক্ষ থেকে প্লাস্টিক সংগ্রহ করার একটি উদ্যোগ নেয় যে সমস্ত পুণ্যার্থীরা প্লাস্টিক ব্যাগ ব্যবহার করে ফেলে দিচ্ছে বা যে সমস্ত পুণ্যার্থীরা প্লাস্টিক ব্যাগ ব্যবহার করছে তাদের কাছ থেকে প্লাস্টিকের ব্যাগ এর পরিবর্তে কাগজের ব্যাগ দিচ্ছে।

পাশাপাশি সমুদ্র সৈকতে যে সমস্ত পুণ্যার্থীরা স্নান করছে তাদেরকে পুলিশ প্রশাসনের তরফ থেকে মাইকিং করে তাদেরকে গভীর জলে যেতে বারণ করা হচ্ছে এবং এক জায়গায় গেদারিং না করে সেদিকেও নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে পুলিশ প্রশাসন। সমস্ত বিষয় তদারকি নিয়ে পঞ্চায়েত মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায় মুখোপাধ্যায় একটি সাংবাদিক বৈঠক করেন বৈঠকে তিনি বিগত দিনের থেকে এবছর কতটা উন্নত প্রযুক্তিতে কতটা সুশৃংখলভাবে গঙ্গাসাগর মেলা কে পরিচালনা করা হচ্ছে তাই নিয়ে তিনি সংবাদমাধ্যমের সামনে তা উল্লেখ করেন। বলা যেতেই পারে করণা আবহেও ২০২১ এর গঙ্গাসাগর মেলা এক কথায় জমজমাট।

আরও পড়ুন: কম্বল বিতরন ও নেশা মুক্তির সচেতনতা শিবির

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here